বুধবার,  ২১ অক্টোবর ২০২০  | সময় লোডিং...
প্রকাশ : ২০ আগস্ট ২০১৯, ১২:২১:২২

প্রতিবন্ধকাতে উপেক্ষা করে এক পায়ে দেশ ভ্রমণ

ডেস্ক রিপোর্ট
ভেলেজুয়েলার বাসিন্দা ইয়েলি আরান্দা। সড়ক দুর্ঘটনায় বাঁ পা হারিয়েছেন। তাতে এতটুকুন  মনোবল হারাননি তিনি। প্রতিবন্ধকতাকেই যেন শক্তি ও উদ্যম হিসেবে নিয়েছেন। এক পা নিয়েই পুরো দক্ষিণ আমেরিকা মহাদেশ ঘুরে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন। নিজের কন্যা ও দেশবাসীকে নানা সমস্যার মাঝেও স্বপ্ন পূরণে উৎসাহিত করাই তাঁর একমাত্র উদ্দেশ্য।
আরান্দা বলেন, “আমি আমার স্বপ্ন নিয়ে বাঁচি। মানুষের প্রতি আমার বার্তা হলো, তারা নিজেদের স্বপ্নগুলো অনুসরণ করুক এবং সেগুলো পূরণ করুক।”
গোটা দক্ষিণ আমেরিকা মহাদেশ পাড়ি দিতে কাঁধে ব্যাকপ্যাক, পকেটে মাত্র ৩০ ডলার এবং হাঁটার সময় ভাঙাচোড়া রাস্তায় ভারসাম্য ঠিক রাখতে অ্যালুমিলিয়াম নির্মিত একটি কৃত্রিম পা লা লাগিয়ে গত বছর যাত্রা শুরু করেন আরান্দা।
গত শনিবার তিনি আর্জেন্টিনার নয়নাভিরাম শহর উসাইয়ায় পৌঁছান। শহরটি বরফ আচ্ছাদিত, খুবই ঠান্ডা; এটি বিশ্বের সবচেয়ে দক্ষিণের শহর নামে সমধিক পরিচিতি।
রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে ভেনেজুয়েলার অবস্থা ভালো নয়। নানা সমস্যায় জর্জরিত দেশটি। হাজার হাজার মানুষ দেশ ত্যাগ করছেন। এমন অবস্থায় দেশবাসীকে অনুপ্রাণিত করতেই ভ্রমণে নেমেছেন বলে জানালেন আরান্দা।
২০১৩ সালের ২৭ আগস্ট প্রাণঘাতী দুর্ঘটনা থেকে কোনোরকমে বেঁচে ফেরার পর এই প্রচেষ্টা অন্যদের অনুপ্রেরণার উৎস হতে পারে বলে মনে করেন সাবেক এই বাসচালক।
আহত মেয়ে পাওলাকে অনুপ্রাণিত করার জন্যও তার এই ভ্রমণ। তার মেয়ে এখনও কৃত্রিম পা লাগাতে পারছে না। হুইলচেয়ারে বন্দি পাওলার জীবন।
মেয়ের ব্যাপারে আরান্দা বলেন, “পাওলা তার ডান পা হারিয়েছে। তার বাঁ পাও অনেক ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। তাই আমি হেঁটে  তাকে কেবল এটা দেখাতে চাই যে, জীবনে কঠোর প্রতিবন্ধকতার মুখোমুখি হওয়া সত্ত্বেও আমাদের এগিয়ে যেতে হবে।”
আরান্দা জানালেন, এই ভ্রমণের পথে যাদের সাক্ষাৎ পেয়েছেন তারা অনেকে তাকে ‘এক পায়ী মানুষ’ বলে অভিহিত করেছে। তার মেয়ে পাওলাও নাকি হুইলচেয়ারে করে এমন একটি ভ্রমণে নামতে পারে। তিনি আরো বলেন, “আমি মানুষকে দেখাতে চেয়েছিলাম যে, বর্তমান কঠিন পরিস্থিতি থাকা সত্ত্বেও তারা তাদের লক্ষ্য অর্জন করতে পারে। অনেক মানুষ আছে, কোনো ধরনের অক্ষমতা থাকা না থাকা সত্ত্বেও তারা তাদের বড় স্বপ্নগুলো যেন ভুলে যায়।”
ভেনেজুয়েলার বারিনাসে বাস চালাচ্ছিলেন আরান্দা, বাসে ছিল তার ২৩ বছর বয়সী মেয়ে পাওলা। বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ট্রাক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে আরান্দার গাড়িতে আঘাত হানে। এতে আরান্দা ও তার মেয়ে উভয়ই একটি করে পা হাঁরান। কয়েক সপ্তাহ হাসপাতালে থাকার পর প্রাণে বেঁচে ফেরেন তারা।
 
 

 

এই পাতার আরো খবর
সর্বশেষ সংবাদসর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ

প্রকাশক: নাহিদা আকতার জাহেদী

১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Powered by orangebd.com